কারফিউ জারির পরামর্শের পর মাওয়া-শিমুলিয়ায় মানুষের ঢল

দ্বিতীয় দফায় কঠোর লকডাউনের ঘোষণা শেষ হতে না হতেই দেশে কারফিউ জারির পরামর্শ দেয়া হয়েছে সরকারকে। পরামর্শ শুনেই শুক্রবার সকাল থেকে মানুষের ঢল নেমেছে মাওয়া-শিমুলিয়া ঘাটে।

দ্বিতীয় লকডাউনের তৃতীয় দিন আজ। এই কঠোর লকডাউনের মধ্যেও মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ফেরিঘাটে যেন জনস্রোত শুরু হয়েছে। গণপরিবহন না থাকায় বিড়ম্বনা মাথায় নিয়েই ঢাকা ও আশপাশের বিভিন্ন

জেলা থেকে পরিবার-পরিজন নিয়ে বিভিন্নভাবে শিমুলিয়ায় ঢল নেমেছে মানুষের। ফেরিতে গাদাগাদি করেই ছুটছে দক্ষিণের জেলাগুলোতে। শুক্রবার ভোর সাড়ে ৭টায় দেখা গেছে এমন দৃশ্য।

শুক্রবার সকাল থেকে দক্ষিণবঙ্গমুখী মানুষ শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে যাত্রীর চাপ থাকলেও ১০টি ফেরি চলাচল করায় ফেরিতে উঠতে সমস্যা হচ্ছে না কারও। তবে গত কয়েক দিনের তুলনায় যাত্রীর চাপ সবচেয়ে বেশি আজ।

এদিকে পুলিশের উপস্থিতিও লক্ষ্য করা গেছে ঘাট এলাকায়। ঘাট ও ঘাটের প্রবেশমুখে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতি রয়েছে। চেকপোস্ট থেকে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘাটে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। সকাল থেকে ঘাটে যাত্রীদের উপস্থিতি থাকলে যানবাহনের আধিক্য ছিল বেশি।

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়াঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক সাফায়েত আহমেদ জানান, শিমুলিয়া-বাংলাবাজার রুটে বর্তমানে ১০টি ফেরি সচল রয়েছে। সকালে ঘাটে যাত্রীদের প্রচণ্ড চাপ ছিল।

তবে ১০টা থেকে চাপ কমতে শুরু করেছে। বিভিন্নভাবে যাত্রী ঘাটে আসছে। ঘাট থেকে বেশ যাত্রী ফেরিতে উঠছে। পণ্যবাহীগাড়ি ও প্রাইভেটকারসহ ৪০০ গাড়ি রয়েছে পারাপারের অপেক্ষায়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *